‘আব্বু-আম্মু ক্ষমা করে দিও, সকাল ১১ টায় আমাকে নিয়ে যাবা’!

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় চিরকুট লিখে এক সৌদি আরব প্রবাসীর স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়েছেন। শনিবার (৬ জুলাই) সকালে উপজেলার পশ্চিমপাড়া গ্রামে শ্বশুর বাড়ি থেকে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ওই গৃহবধূর নাম আঁখি মনি (১৭)। তিনি লালমনিরহাট তালুক খুঁটামারা বত্রিশ হাজারি গ্রামের আইনুল হকের মেয়ে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সৌদি আরব প্রবাসী শাকিল মিয়ার সঙ্গে ১০মাস আগে ভিডিও কলের মাধ্যমে বিয়ে হয় আঁখি মনির। প্রতিদিনের মতো শুক্রবার রাতে পরিবারের সঙ্গে খাওয়া-দাওয়া শেষে নিজের কক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন আঁখি। শনিবার সকালে তাকে ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে তার শ্বশুর। পরে তাকে উদ্ধার করে আদিতমারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে আঁখির শয়ন কক্ষে একটি চিরকুট পাওয়া যায়। সেখানে লেখা রয়েছে- ‘আব্বু-আম্মু তোমরা আমাকে ক্ষমা করে দিও। আগামীকাল সকাল ১১ টায় আমাকে নিয়ে যাবা। আমার জীবনে কিছু নেই।’

আরো দেখুন:

আনিকার ৭ মিনিট ১১ সেকেন্ডের ভিডিও ছড়িয়ে দিলেন প্রেমিক!

 

এ বিষয়ে আখির বাবা আইনুল হক বলেন, আমার মেয়ে রাতে ফোন দিয়ে শ্বশুর-শাশুড়ির নির্যাতনের কথা বলেছে। রাতেই তাকে নিয়ে আসতে বলেছিল। আমি সকালে নিতে যাবো বলেছিলাম। তার আগেই আমার মেয়ের মৃত্যু হলো। সে নির্যাতনের শিকার হয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে আঁখি গলায় ফাঁস দিয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার বাবা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Full Video